Top ad
আমি মোহাম্মদ জিহাদুর রহমান নয়ন, পেশা হিসেবে একজন ছাত্র । পাশাপাশি, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এ কাজ করি । প্রযুক্তি নিয়ে লিখতে ভালবাসি, তাই অবসর সময়ে প্রযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করি ।

মোঃ আল-আমিন এর সফলতার গল্প

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( টি ভোট দেওয়া হয়েছে, গড় রেটিং: ৫.০০ যেখানে সর্বোচ্চ রেটিং: ৫)
Loading...

মোঃ আল-আমিন বর্তমানে কাজ করছেন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট নিয়ে । ২০১১ সালের আগে, উনার ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে তেমন কোন ধারণা ছিল না । এরপর ২০১১ সালে উনার চাচাতো ভাইয়ের কাছে প্রথম ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে জানতে পাড়েন । প্রথমে তিনি এই পেশাকে তেমন গুরুত্ব দেননি । এরপর, উনার চাচাতো ভাইয়ের সফলতা দেখে এই পেশার প্রতি উনার আগ্রহ হয় ।

আমরা এখন মোঃ আল-আমিন এর সফলতার গল্প জানবো । আশা করি, উনার সফলতার গল্প শুনে যারা ফ্রিল্যান্সিং এ ক্যারিয়ার গড়তে চান তাঁরা অনুপ্রেরণা পাবেন ।

ইন্টারনেট এর সাথে আপনার পরিচয় কিভাবে হয়?

ইন্টারনেট এর সাথে আমার পরিচয় আমার চাচাতো বর ভাই এর মাধ্যমে সে আমাকে সর্ব প্রথম ফেসবুক এ অ্যাকাউন্ট খুলে দেয় সেখান থেকেই আসতে আসতে করে ইন্টারনেট এর সাথে পরিচয় ।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর শুরুটা কিভাবে করেছিলেন?

একটা সময় এই বিষয়ে কিছুই জানতাম না । আমার বড় ভাইকে দেখতাম ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কাজ করতো কিন্তু কিছুই বুজতাম না । একটা সময় এইটা শেখার খুব ইচ্ছা করে । তখন ভাই এর কাছ থেকে একটু একটু করে কাজ সেখার চেষ্টা করতাম । তখন দেখলাম যে নিজের কম্পিউটার ছাড়া শেখা সম্ভব না । তাই কম্পিউটার অ্যান্ড ইন্টারনেট নিয়ে নিলাম । তারপর একটু একটু করে রাসেল ভাই এর টিউটোরিয়াল ইউটিউব থেকে দেখে দেখে শেখা । এরপর সফটটেক আইটি ইন্সটিটিউট এর মোহাম্মদ তরিকুল মাওলা সুজন ভাই এর কাছ থেকে সম্পূর্ণ কাজটা শিখি ।

কিভাবে সফল হলেন?

একদিন ফেসবুকে ফ্রিল্যান্সিং পেশা নিয়ে অনেক তথ্য পেলাম SoftTech-IT এর অফিসিয়াল পেজ এ । তাদের একটি ফ্রি ক্লাস এর জন্য অ্যাপ্লাই করে তাদের ক্লাস টা করি আর ভাল করে জানতে পারি এবং কোর্স এ ভর্তি হয়ে যাই । তারপর থেকেই ফ্রিল্যান্সিং জীবনে পথ চলা শুরু এবং সফটটেক আইটি ইন্সটিটিউট এর মোহাম্মদ তরিকুল মাওলা সুজন ভাই এর দেখানো পথ ধরে একটু একটু করে চলতে চলতে আজ এত দূর ভাবতেও পারি নি জে এই পেশায় এত দ্রুত সফলতা পাব । তা একমাত্র সফল হয়েছে সুজন ভাই এর জন্য তার সাহায্য না পেলে মনে হয় এত দূর এত তারাতারি আসতে পারতাম না । সে সবসময়ই একজন ছোট ভাই এর মত স্নেহ করেছে এবং বড় ভাই এর চেয়েও বেশি সাহায্য করেছেন । এক কথায়, আমার ফ্রীলান্সিং লাইফ এ তাঁর অবদান এর কোন শেষ নেই । এখন মহান আল্লাহ্‌ তা’আলার অশেষ রহমতে লাইফ এ অনেক ভালো আছি । আপনারা সবাই আমার জন্য দুয়া করবেন যেন আমি ভালো কিছু করতে পারি ।

নিজেকে কেমন অবস্থানে দেখতে চান?

আমার স্বপ্ন থিমফরেস্ট এ আমার থিম থাকবে । আমার অনেক স্টুডেন্ট থাকবে । কারণ, কাউকে শেখাতে আমার অনেক ভাল লাগে এবং আমার জীবনে একটা বড় স্বপ্ন থিম ডেভেলপমেন্ট এর জন্য যেন একটা বড় অফিস খুলতে পারি ।

IMG_6502

অবসর সময় কিভাবে কাটান?

অবসর সময় একটু বন্ধুদের সাথে বাহিরে ঘুরতে বের হয় । আর বেশীরভাগ সময়ই নতুন কিছু শিখার চেষ্টা করি । কারন শিখার কোন শেষ নেই ।

নতুনদের জন্য আপনার পরামর্শ

নতুনদের জন্য আমার পরামর্শ কাজ শিখতে যেয়ে হতাশ না হওয়ার জন্য । আর একটা কথা সবসময়ই মনে রাখবে একবার না পারিলে দেখো শতবার । কারন মানুষ পারে না এমন কোন কাজ নেই ।

ধন্যবাদ মোঃ আল-আমিন কে আমাদের সাথে উনার সফলতার গল্প শেয়ার করার জন্য ।

৪ responses to “মোঃ আল-আমিন এর সফলতার গল্প”

  1. Sohel Rana says:

    থিমফরেস্ট এ থিম থাকবে , এই স্বপ্নটা আমার সাতে মিলে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ব্লগ সম্পর্কে

সফটটেক ব্লগ একটি বাংলা কমিউনিটি ব্লগিং প্ল্যাটফরম যেখানে লেখক নিবন্ধন করে তাঁদের লেখা প্রকাশ করতে পারেন । এখানে শুধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক লেখা প্রকাশ করা হয় ।

যোগাযোগ

ঠিকানাঃ হাউজ#৪, লেভেল#৬, রোড#১/এ, সেক্টর#৯, আমিন টাওয়ার এপার্টমেন্ট, উত্তরা, ঢাকা - ১২৩০